Bangladesh Group Theatre Federation
বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের প্রীতি ও শুভেচছা নিবেন। আমরা বিনম্র চিত্তে স্মরণ করি প্রয়াত সকল নাট্যবন্ধুদের। নাট্যকর্মীদের পরস্পরের মধ্য সৌহার্দ্য সম্প্রীতির যে সংস্কৃতির উত্তরাধিকার আমরা ,বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশান তার আলোয় আগামীর স্বপ্ন রচনা করছে, আজ আনন্দের সাথে জানাচ্ছি যে আমাদের বহুল প্রতিক্ষিত বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশান ওয়েব সাইট তৈরী করতে পেরেছি। নবপ্রাণ সঞ্চারের যে স্বপ্ন আমরা মুক্তিযুদ্ধের দ্বিতীয় ও তৃতীয় প্রজন্ম দেখছি তার বাস্তবায়নে আমরা নবনির্বাচিত কেন্দ্রীয় পরিষদের চেয়ারম্যানসহ সকল সদস্যদের নিয়ে নিরলস কঠিন পরিশ্রম করতে বদ্ধপরিকর। আমরা বাংলাদেশ গ্রুপথিয়েটার ফেডারেশনকে একটি সৃষ্টিশীল ও নাট্য আন্দোলনমুখী সংগঠন হিসাবে পুনরায় গড়ে তুলতে চাই। ভবিষ্যতে আমাদের উত্তর প্রজন্মকে ডিজিটাল প্রযুক্তিতে বাংলাদেশের মঞ্চ নাটককে আধুনিকতার শীর্ষে নিয়ে যাবার ভাবনায় রয়েছে এবং এই ওয়েব সাইট ব্যাপক ভূমিকা রাখবে। 


আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের জয়লাভের মধ্যদিয়ে আমরা যে স্বাধীন বাংলাদেশ ১৯৭১ এ অর্জন করলাম।মহান স্বাধীনতার ফসল আমাদের গর্বের মঞ্চ নাটক। যুদ্ধ ফেরত কিছু তরুণ এর হাত ধরে শুরু হলো নব নাট্য আন্দোলন। শিল্পের প্রতি দায়বদ্ধতা, বাঙ্গালীর হাজার বছরের সমৃদ্ধ সংস্কৃতি এবং মুক্তিযুদ্ধকে চেতনায় ধারন করে গড়ে উঠে গ্রুপ থিয়েটার চর্চা।

সময়ের দাবীতে ১৯৮০ সালে গঠিত হলো বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশান। বর্তমানে সারাদেশের প্রায় ৪০০’র অধিক নাট্য সংগঠন নিয়ে এগিয়ে চলছে এই সংগঠন। দেশের জনগনের কাছে বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশান জনগনের কাছে এক প্রাণের সংগঠন। দেশ, জাতির অধিকার আদায়ের ও রাজনৈতিক অর্থনৈতিক মুক্তির আন্দোলন ও নাটকের মহামিলন ঘটিয়েছে যে সংগঠন সেই সংগঠনটিই হচ্ছে বাংলাদেশ গ্রুপ থিঁযেটার ফেডারেশান।

আর এই সংগঠনটির প্রতিষ্ঠা পেয়েছিলে যাঁদের হাতে ও নেতৃত্বে তাঁরা হলেন প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রামেন্দু মজুমদার, প্রতিষঠাতা সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দীন ইউসুফ, প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মামুনু রশীদ , আতাউর রহমান সহ অনেক অগ্রজ নাট্যজন। তাঁদের আমরা জানাতে চাই আন্তরিক শ্রদ্ধা।

আজ আশার কথা সাম্প্রতিক সময়ে নতুন প্রজন্মের নাট্যকার,নির্দেশক, কলাকুশলীরা নতুন চিন্তা নতুন ভাবনায় নাটকের গুণগত পরিবর্তনে ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে। আমাদের মূল লক্ষ্য হবে তরুণদের এই পরিবর্তনের ধারাকে বেগবান ও সংহত করতে পূর্ণ সমর্থন ও সহযগিতা করা। একটি পেশাদারীত্য থিয়েটার চর্চা আমাদের অন্যতম লক্ষ্য।একই সাথে নতুন কালের চ্যালেঞ্জ ধর্মান্ধ জঙ্গীবাদকে প্রতিরোধ করতে প্রগতিশীল রাজনৈতিক আন্দোলনে সক্রিয় অংশ গ্রহণ।

সৃজনশীল সৃষ্টিশীলতাই মুক্তির একমাত্র পথ। সেই পথেই আমাদের যাত্রা । জয় হোক নাটকের ।

চেয়ারম্যান এর কথা

বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন (বিজিটিএফ) এর দীর্ঘ প্রতীক্ষিত ওয়েবসাইট উদ্বোধন, আমার জন্য সত্যিই একটি আনন্দ। বাংলাদেশ একটি হাজার বছর এবং পৃথক থিয়েটার-ঐতিহ্য আছে। ঐ ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতা হিসাবে বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের পরে যে শিল্প-কৌশলটি সর্বাধিক উন্নত হয়েছে, তা নিঃসন্দেহে থিয়েটার। আজ বাংলাদেশের থিয়েটারটি বিশ্ব-শ্রেণি এবং নিজস্ব-সৌন্দর্য ও ব্যক্তিত্বের ক্ষমতায় অতি সাধারণ।

বাংলাদেশের থিয়েটার কর্মীরা দেশের বা বিদেশে যেকোনো ন্যায্য আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে। তারা সর্বদা গণতন্ত্র, সংস্কৃতির উত্থান, ধর্মনিরপেক্ষতা এবং জঙ্গিদের বিরুদ্ধে বিকাশের জন্য সক্রিয়। তারা ভবিষ্যতে এই অবিরত করা আবশ্যক।

বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন একটি ঐক্যবদ্ধ সংস্থা যা প্রায় তিনশত বেশি সক্রিয় থিয়েটার গ্রুপ নিয়ে গঠিত। সঠিক আন্দোলনের সংগ্রামে উপযুক্ত ভূমিকা পালন করার পাশাপাশি, বিজিটিএফ সংস্থা থিয়েটারের উন্নয়নের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ এবং থিয়েটার কর্মীদের অধিকার প্রদানের জন্য অঙ্গীকারবদ্ধ।

আমি বিশ্বাস করি যে বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার এর কার্যক্রম বাস্তবায়নে সহায়ক হবে এই ওয়েবসাইট। আমি আন্তরিকভাবে ওয়েবসাইট এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাই।

লিয়াকত আলী লাকি
কামাল বায়েজীদ

সেক্রেটারি জেনারেল এর কথা

বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশান এর স্বপ্নময় যাত্রার নতুন মাত্রা গঠিত হলো ওয়েব সাইটের মাধ্যমে। দেশের সকল নাট্যবন্ধুদের কাছে প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি এই ওয়েব সাইট নির্মানে সহযোগীতার জন্য। থিয়েটারের সকলেই এখন গর্ববোধ করতে পারবেন তাদের বহুদিনের কাঙ্খিত স্বপ্ন পূরন হয়েছে। 

এই ওয়েব সাইটের মাধ্যমে বাংলা নাটক আন্তর্জাতিক পথে সপ্নময় যাত্রা শুরু করলো, যা কাল থেকে কালান্তরে বাংলা নাটকের ইতিহাস, বর্তমান ও ভবিষ্যতকে বয়ে বেড়াবে। এই ওয়েব সাইট নির্মানে সহযোগীতাকারী সকল বন্ধুদের প্রতি রইল আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।

জয় হোক নাটকের। জয় হোক মানবতার।

Close Menu